তামিমের যে প্রশ্ন আম্পায়ারদের?

তামিমের যে প্রশ্ন আম্পায়ারদের?

তামিমের যে প্রশ্ন আম্পায়ারদের?
Mar 17
02:062018
142

তামিমের যে প্রশ্ন আম্পায়ারদের- শেষ ওভারে যখন জয়ের কাছে বাংলাদেশ তখনই এক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটে মাঠে। নো বল দেওয়া নিয়ে মাঠে ছড়ায় উত্তেজনা। কিন্তু কেন এই উত্তেজনা?

এর ব্যাখ্যা দিয়েছেন তামিম। উদানার দ্বিতীয় বলে নো দেখিয়েছিলেন লেগ আম্পায়ার কিন্তু তাতে সাড়া দেয়নি কেউ। আর এ নিয়েই অভিযোগ করছিল বাংলাদেশ শিবির। যা নিয়ে উত্তেজনার এক পর্যায়ে খেলোয়াড়দের মাঠ ছেড়ে আসতে বলেন অধিনায়ক সাকিব আল হাসান।

ম্যাচ শেষে তামিম এর জবাবে বলেন, ‘আমরা দেখেছিলাম লেগ আম্পায়ার নো বলের সিগন্যাল দিয়েছিল। সাড়া না পাওয়ায় অভিযোগও করেছি।’ তাই বলে এমনভাবে শেষটা চাননি তামিম।

তার মতে শেষটা আরও সুন্দর হতে পারতো, ‘সত্যিই শেষটা ছিল আবেগঘন। আমরাও আরও সুন্দরভাবে এর শেষ করতে পারতাম। তবে এ নিয়ে আর ঝামেলা করতে চাইনি।’

শেষ দিকে উত্তেজনা এমনই পর্যায়ে গিয়েছিল মাঠের বাইরেই বাংলাদেশ শিবিরকে উত্তেজিত দেখা গেছে খুব। যদিও শেষ পর্যন্ত ছয় মেরে জয় নিয়েই নো বোলের আক্ষেপটা ভুলিয়ে দিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

নিজেদের জাত চিনিয়ে জয় ছিনিয়ে নিলো টাইগাররা
সেমিফাইনাল মনে হয় একেই বলে। নিরদাস ট্রফির ফাইনালে ওঠার লড়াই টানটান উত্তেজনাকর মুহুর্তের সাক্ষী থাকলো পুরো বিশ্ব। কখন বাংলাদেশ কখন শ্রীলঙ্কা, এই অবস্থার মধ্য ১৭.৩ ওভারে সাকিবের আউটটা যেন অপূরণীয় ক্ষতি টাইগার শিবিরে।

সেই ক্ষতি পুরণে অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ মেহেদি হাসানকে নিয়ে লড়াই শুরু করেন। ১৯ ওভারের মাথায় মেহেদি রান আউট যেন আরো বড় একটা ধাক্কা। স্কোর বোর্ড তখনও দেখাচ্ছে ৬ বলে ১২ রান। শেষ ওভারে মুস্তাফিজের রান আউট হওয়ার পরেও মাহমুদুল্লাহর অভিজ্ঞতাই যেন কাজে লাগলো। একাই শেষ দুই বলে এক চার ও এক ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে জিতিয়ে দিলেন।

শেষ ওভারে ঘটে যায় অপ্রীতিকর একটি ঘটনা। মাথার উপরে বাউন্স বল নো-বল না ডাকায় কথাকাটি শুরু হয় মাঠের মধ্য। সাকিব রেগেমেগে মাঠে নেমে আছে।

এক পর্যায়ে তৃতীয় আম্পায়ার এসে বিষয়টা মিটিয়ে ফের খেলা শুরু করে। এবং এই ঘটনার পরেই জ্বলে উঠেন দলীয় অধিনায়ক। কেন তাদেরকে টাইগার বলা হয় প্রমাণ দেখান। এবং নিজেদের জাত চিনিয়ে লঙ্কানদের কাছ থেকে জয় ছিনিয়ে নেয় টাইগাররা।

নির্বাচিত সংবাদ

More Articles

অনলাইন জরিপ

সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী দেড় বছরের মধ্যে প্রতিটি জেলায় ফোর-জি সেবা চালু হবে বলে মনে করেন কি?

পুরোনো ফলাফল