পেনশনের টাকার লোভে তিন বছর নির্মমভাবে মায়ের লাশ ফ্রিজে রাখে ছেলে । বিস্তারিত জানতে পরুন...

পেনশনের টাকার লোভে তিন বছর নির্মমভাবে মায়ের লাশ ফ্রিজে রাখে ছেলে । বিস্তারিত জানতে পরুন...

পেনশনের টাকার লোভে তিন বছর নির্মমভাবে মায়ের লাশ ফ্রিজে রাখে ছেলে । বিস্তারিত জানতে পরুন...
Apr 18
05:292018
77

বৃদ্ধা মা মারা গেছেন তিন বছর আগে। সেই বৃদ্ধা মায়ের নাড়িভুঁড়ি বের করে তার দেহ তিন বছর ধরে ফ্রিজে রেখে দিয়েছিল ছেলে শুভব্রত মজুমদার। ৪ এপ্রিল বুধবার খোঁজ পেয়ে ফ্রিজ বীণা মজুমদারের দেহ বের করে পুলিশ। এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতে কলকাতায়।

ছেলে শুভব্রত মজুমদার এলাকায় মেধাবী ছাত্র হিসেবেই পরিচিত ছিল। বিজ্ঞানের ছাত্র হওয়ায় মৃতদেহ সংরক্ষণ করতে তার কোনো সমস্যায় পড়তে হয়নি। পুরো দেহটি ফরমালিন মাখানো ছিল। তবে দেহে কাটা দাগও রয়েছে।

মৃতদেহটি এরই মধ্যে ময়নাতদন্তের জন্য নিয়ে গেছে পুলিশ। এরপর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক নীলাঞ্জন বিশ্বাস জানান।

শুভব্রত লেদার ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ছাত্র ছিল। সে জন্যই সে এত দক্ষতার সঙ্গে কেমিক্যাল লাগিয়েছিল মায়ের দেহে। পাড়া-প্রতিবেশীরা কোনো গন্ধ পায়নি।

তবে পুলিশের ধারণা, মায়ের পেনশন পাওয়ার জন্যই এই কাজ করেছে শুভব্রত। বীণা দেবীর অ্যাকাউন্ট ছিল আলিপুর স্টেট ব্যাঙ্কে। এটিএম সেই টাকা তুলত শুভব্রত।

উল্লেখ্য, বাবা-মায়ের সঙ্গে থাকতেন শুভব্রত মজুমদার। বাবা গোপাল মজুমদার (৭৯) ও মা বীণাদেবী সরকারি চাকরি করতেন। দুই জনই ফুড ডিপার্টমেন্টে ছিলেন। ৩ বছর আগে অসুস্থ হাসপাতালে ভর্তি হন বীণাদেবী। সেখানেই মৃত্যু হয় তার।

নির্বাচিত সংবাদ

More Articles

অনলাইন জরিপ

সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী দেড় বছরের মধ্যে প্রতিটি জেলায় ফোর-জি সেবা চালু হবে বলে মনে করেন কি?

পুরোনো ফলাফল