ব্রণ থেকে মুক্তি করুন নিমিষেই

ব্রণ থেকে মুক্তি করুন নিমিষেই

ব্রণ থেকে মুক্তি করুন নিমিষেই
Feb 16
06:292018
91

ব্রণের সমস্যায় ভোগেননি এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুস্কর।  তেরো বছর থেকে উনিশ বছর বয়স পর্যন্ত শতকরা নব্বই জনের এ রোগটি কমবেশি হয়ে থাকে। এই বয়সের পরেও ব্রণ দেখা দেয় নানা কারণে। দাগ, ব্যাথা, লালচে ভাব, ফোলা ভাব সব মিলিয়ে খুব বাজে অবস্থায় পড়তে হয় অনেককে। এ ঝামেলা থেকে মুক্তি পেতে কিছু সহজ নিয়ম আজ আপনাদের বলব।
1  প্রতিদিন ৩-৪ বার মুখে বরফ ঘষুন। এতে করে ব্রণের আশপাশের রক্ত সঞ্চালন বাড়বে। ফোলা এবং লালচে ভাব কমে আসবে।
2.পাকা পেঁপে ব্লেন্ড করে আইস কিউব বানিয়ে নিন। এই আইস কিউবটি মুখে ঘষুন। ত্বক পরিস্কার হবে।
3. প্রতিদিন রাতে শোবার আগে টাটকা লেবুর রসের সাথে দারুচিনির গুড়া মিশিয়ে মুখে ম্যাসাজ করুন। দারুচিনি স্যুট না করলে চন্দন ব্যবহার করুন। এরপর টি ট্রি অয়েল ত্বকে লাগিয়ে ঘুমান। যাদের লেবু ব্যবহারে সমস্যা তারা মধু অথবা টমেটোর জুস ব্যবহার করুন।
4. সকালে উঠে মুলতানি মাটির সাথে শঙ্খ চূর্ণ আর চন্দন গুড়ার সাথে অ্যাপেল সিডার ভিনেগার মিশিয়ে নিন। মিশ্রণটি ব্যবহারের আগে প্রথমে মুখে পেঁপের আইস কিউব অথবা বরফ ঘষে নিন। এরপর মুলতানি মাটি, শঙ্খ চূর্ণ আর চন্দন গুড়ার সাথে অ্যাপেল সিডার ভিনেগারের মিক্সচারটি গলাসহ মুখে লাগান। এতে করে ব্রণের দাগ নিমিষেই হালকা হয়ে আসবে। শুষ্ক ত্বক হলে মুলতানি মাটির বদলে বেসন ব্যবহার করবেন। মিশ্রণটি শুকিয়ে টানটান হয়ে এলে হালকা ম্যাসাজ করে ধুয়ে ফেলুন। পরে মুখে একটু স্টিম নিন। সবশেষে বরফ ঘষুন।
5. কাঁচা হলুদ বাটা এবং চন্দন কাঠের গুঁড়ো সমপরিমাণে একত্রে নিয়ে এতে পরিমাণ মত পানি মিশিয়ে পেষ্ট তৈরি করতে হবে। মিশ্রণটি ব্রণ আক্রান্ত জায়গায় লাগিয়ে রেখে কিছুক্ষণ পর শুকিয়ে গেলে মুখঠান্ডা পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন এই মিশ্রণটি শুধুমাত্র ব্রণ দূর করার কাজ করে না বরং ব্রণের দাগ দূর করতেও সাহায্য করে।
6. গোলাপজলের নিয়মিত ব্যবহারে ব্রণের দাগ কমে যায়। দারুচিনি গুঁড়ার সাথে গোলাপজল মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করুন। এই পেস্ট ব্রণের ওপর লাগিয়ে ২০ মিনিট পর ধুয়ে ফেলুন। এতে ব্রণের সংক্রমণ, চুলকানি এবং ব্যথা অনেকটাই কমে যাবে।
এসব উপায় অনুসরন করা ছাড়াও প্রতিদিন ৯-১০ গ্লাস পানি পান করুন, শাকসবজি, জুস, ফল খাবেন বেশি বেশি। ভাজা পোড়া, এনিম্যাল ফ্যাট এড়িয়ে চলুন। রোদ থেকে যতটা সম্ভব দূরে থাকুন। বাইরে থেকে আসা মাত্র মুখ ফেসওয়াস দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এতে করে ত্বকে জমে থাকা ধূলোবালি পরিষ্কার হয়ে যাবে। পরিশেষে নখ দিয়ে ব্রণ খোটার বাজে কাজটি থেকে বিরত থাকুন।

নির্বাচিত সংবাদ

More Articles

অনলাইন জরিপ

সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী দেড় বছরের মধ্যে প্রতিটি জেলায় ফোর-জি সেবা চালু হবে বলে মনে করেন কি?

পুরোনো ফলাফল